জীবের মর্যাদা পেল হিমালয়ের হিমবাহ

নিউজিল্যান্ডে নদীকে ব্যক্তিমর্যাদা দেয়ার পদাঙ্ক অনুসরণ করে এবার হিমালয়ের দুটো হিমবাহ এবং প্রধান দুই নদী গঙ্গা ও যামুনাকে ব্যক্তিমর্যাদা প্রদান করলো ভারতের একটি আদালত। পার্বত্য অঞ্চলের পরিবেশ রক্ষায় বদ্ধপরিকর ঐ আদালতটি গতমাসে যথাক্রমে গঙ্গা ও যমুনা নদীর উৎপত্তিস্থল গঙ্গোত্রি ও যমুনোত্রি হিমবাহ দুটিকে জীবিত ব্যক্তিসত্তার মর্যাদায় ভূষিত করে।

এ বিষয়ে ভারতের উত্তরাখন্ডের সর্বোচ্চ আদালত শুক্রবারে এক রুলিংয়ে জানায়, “এই নদী এবং হিমবাহগুলো এখন থেকে মানুষের সমান অধিকার ভোগ করবে, এবং এদের উপর কোনরূপ আঘাত বা এদের ক্ষতিসাধনের চেষ্টাকে মানুষের সমপর্যায়ের ক্ষতি বলে বিবেচনা করা হবে।” উল্লেখ্য, এদের মধ্যে যমুনোত্রি হিমবাহটির আকার সম্প্রতি আশংকজনকভাবে ছোট হচ্ছিলো। একই দিকে এগোচ্ছিলো গঙ্গোত্রিও। তাই তাদের রক্ষা করতে এই পদক্ষেপ নিয়েছে উত্তরাখন্ডের আঞ্চলিক উচ্চ আদালত। এ ছাড়াও অত্র এলাকার বেশকিছু হ্রদ, ঝর্ণা, বনভূমি এবং উপত্যকাকেও দেয়া হয় একই মর্যাদা।

হাজার বছর ধরে ভারতের অধিবাসী হিন্দু সম্প্রদায় গঙ্গা ও যমুনার জলকে পবিত্র জ্ঞান করে ধর্মীয় বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানে এই জল ব্যবহার করে এসেছে। তবে সম্প্রতি অনুন্নত পয়ঃনিষ্কাশনব্যবস্থা এবং কারখানার অপরিকল্পিত বর্জ্য নিক্ষেপে দূষণের শিকার হয়ে অস্তিত্ব হারাতে বসেছে দুটি নদীই। ভারত সরকার বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেও ২,৫০০ কিলোমিটার (১৫৫৩ মাইল) জুড়ে বয়ে গিয়ে বঙ্গোপসাগরে মেশা গঙ্গা নদীটির জলের পূর্বের পরিচ্ছন্ন অবস্থা ফিরিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়েছে। নদীদূষণ ঠেকাতে হাইকোর্টের রুলিংই এখন শেষ ভরসা ভারতের পরিবেশবাদীদের।

আরও পড়ুন: নদী পাচ্ছে মানুষের অধিকার!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*