বৈশ্বিক উষ্ণায়ন: রেকর্ডগড়া আগস্ট মাস!

বৈশ্বিক উষ্ণতা যে ক্রমাগত বেড়েই চলেছে, তা আর অস্বীকার করার উপায় থাকছে না। গত মাসটি ছিল আধুনিক সময়ের সবচেয়ে উত্তপ্ত আগস্ট মাস। মাসের হিসেবে এখন পর্যন্ত ২০১৫ সালের আগস্ট মাসে দেখা গেছে সবচেয়ে উত্তপ্ত পরিবেশ। সম্প্রতি এমন তথ্যই জানিয়েছেন যুক্তরাস্ট্রের বিজ্ঞানীরা।

august-heat

সাম্প্রতিক সময়ে দক্ষিণ আমেরিকা, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ ও এশিয়ার বেশিরভাগ জায়গাতেই পুরাতন সব রেকর্ডভাঙ্গা উষ্ণতা দেখা গেছে। ন্যাশনাল ওশেনিক অ্যান্ড অ্যাটমোসফোরিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এনওএএ)-এর একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, এবছরের ষষ্ঠ মাস হিসেবে আগস্ট গড়েছে উষ্ণতার নতুন রেকর্ড। মাসের হিসে্েব এর আগে ফেব্রুয়ারি, মার্চ, মে, জুন ও জুলাই মাসেও দেখা গেছে ১৩৬ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি উষ্ণ আবহাওয়া। ফলে বিজ্ঞানীরা বলছেন যে, বছরের হিসেব্ওে হয়তো নতুন রেকর্ডই গড়বে ২০১৫ সাল। যেটা এখন আছে ২০১৫ সালের দখলে।

এনওএএ-র উর্ধ্বতন কর্মকর্তা দেকে আর্ন্ডট বলেছেন, ‘বিশ্বের বেশিরভাগ জায়গাতে দেখা যাচ্ছে রেকর্ডগড়া বা স্বাভাবিক গড়ের চেয়ে অনেক বেশি উষ্ণ আবহাওয়া। এটা প্রায় সব মহাদেশ ও প্রতিটি সমুদ্রের একটা বড় অংশের জন্য সমানভাবে প্রযোজ্য।’ বিজ্ঞানীরা হিসেব করে দেখেছেন যে, ২০১৫, স্মরণকালে পৃথিবীর সবচেয়ে উষ্ণ বছর হওয়ার আশঙ্কা ৯৭ শতাংশ। এই রেকর্ডগুলো বৈশ্বিক উষ্ণায়ন নিয়ে উদ্বেগ ক্রমাগত বাড়াচ্ছে। শিল্পবিপ্লবের পর থেকে বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি পেয়েছে ০.৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস। সেটা কোনোভাবেই যেন দুই ডিগ্রী সেলসিয়াসে না পৌঁছায়, সেজন্য নানামুখী তৎপরতা চালাচ্ছেন বিশ্বনেতারা।

গত আগস্ট মাস বেশি উত্তপ্ত হয়ে পড়েছে পৃথিবীর পানির প্রভাবে। এনওএএ-র রিপোর্টে বলা হয়েছে, ‘সাত সমুদ্রের বৃহৎ একটা অংশেই ছিল স্বাভাবিক গড়ের চেয়ে অনেক বেশি উষ্ণতা। কিছু কিছু এলাকায় দেখা গেছে রেকর্ডগড়া উষ্ণতা।’ আগস্ট মাসের সমুদ্রপৃষ্ঠের উষ্ণতা ছিল ২০ শতকের গড় উষ্ণতার চেয়ে ০.৭৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস বেশি। জুলাই মাসের ক্ষেত্রে সংখ্যাটা ছিল ০.০৪ ডিগ্রী সেলসিয়াস। ফলে ১৮৮০ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে যে কোনো মাস হিসেবে সবচেয়ে উষ্ণ মাসের রেকর্ড গড়েছে আগস্ট।