ঘূর্ণিঝড় ডেবি ও বন্যায় অস্ট্রেলিয়ায় নিহত ৫

অস্ট্রেলিয়া প্রধান দুই রাজ্যে মুষলধারে বর্ষণ এবং ঘূর্ণিঝড়ের কারণে বন্যা ও জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। নিহত হয়েছেন পাঁচজন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ও ক্ষয়ক্ষতির হার কমাতে রাজ্যদ্বয়ের শহরগুলো দ্রুত জনশূণ্য করে দিচ্ছে দেশটির সরকার।

গত মঙ্গলবার অস্ট্রেলিয়ার উত্তর-পূর্ব উপকুলের কুইন্সল্যান্ড রাজ্যের বৌয়েন এবং এয়ারলাই সৈকতের মাঝামাঝি আঘাত হানে চতুর্থ মাত্রার ঘূর্ণিঝড় ডেবি। ফলে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতির শিকার হয় উপকুলীয় অঞ্চলের গাছপালা এবং লোকালয়। যদিও দক্ষিণ-পশ্চিমের দিকে যেতে যেতে ক্রমশ তেজ কমে আসে ডেবি, তবুও দমকা হাওয়ার ঝটকায় ক্ষতিগ্রস্থ হয় পূর্ব উপকুলের নিউ সাউথ ওয়েল্স রাজ্য, দক্ষিণ কুইন্সল্যান্ড সিডনি। এ ছাড়াও নিউ সাউথ ওয়েল্স উপকুলের লিসমোর এবং দক্ষিণ মুরউইলাম্বাতে তিন মিটার (দশ ফিট) গভীর জলে ডুবে আছে শহরগুলো।

স্টেট এমার্জেন্সি সার্ভিসের দায়িত্বপ্রাপ্ত কমিশনার মার্ক মরো জানান, তারা আশংকা করছেন লিসমোরে আরও অনেকে নিখোঁজ হয়ে থাকতে পারে। এলাকাবাসী জানায়, তাদের দেখা বিগত পঞ্চাশ বছরের সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা এটা। ক্ষতিগ্রস্থ রাজ্যগুলোয় পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ, পানীয় জল এবং অন্যান্য মৌলিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়ে দিন কাটাচ্ছেন প্রায় ৫০,০০০ অধিবাসী।

ইতমধ্যে উদ্ধারকার্য এবং ত্রাণ বিতরণে ১৩,০০০ সেনা নিয়োগ করেছে দেশটির সেনাবাহিনী। কর্তৃপক্ষ বলছে এই ঘূর্ণীঝড় ও বন্যায় ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ১ বিলিয়ন অস্ট্রেলিয় ডলারে পৌঁছতে পারে, যা ৭৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের সমমূল্যের। এর আগে ২০১৩ তে পাঁচ মাত্রার ঘূর্ণীঝড় অসওয়াল্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ছিল ১ বিলিয়ন অস্ট্রেলিয় ডলার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*