বুয়েটে মুছে ফেলা হল রামপালবিরোধী গ্রাফিতি

মাঈশা মারিয়ম সৈয়দ

প্রতিবছর ২৬ শে মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে দিনরাত পরিশ্রম করে ক্যাম্পাসের ভেতরের দেয়ালগুলো বাহারি দেয়ালচিত্র দিয়ে রাঙিয়ে তোলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বুয়েটের ছাত্রছাত্রীরা। মূলত স্থাপত্যকলা বিভাগের তত্বাবধানে এই শিল্পকর্মগুলো তৈরি হলেও, এতে অংশ নেয় বাইরের শিল্পীরাও। এসব দেয়ালচিত্র বা গ্রাফিতিতে উঠে আসে স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের পাশাপাশি সমসাময়িক জাতীয় সমস্যার মত প্রাসঙ্গিক বিষয়াদি। যেমনটা এবার উঠে এসেছিলো রামপাল তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প।

অভিনব গ্রাফিতির মাধ্যমে পরিবেশ ও সুন্দরবনের পক্ষে ক্ষতিকর এই বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান বুয়েটের শিক্ষার্থীরা। কিন্তু কে বা কারা এসে মুছে দিয়েছে সেগুলো। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, তাদের অনুমতি না নিয়ে সাদা চুনকাম করে দেয়াল থেকে গ্রাফিতিগুলো নিশ্চিহ্ন করে দেয়া হয়েছে, এমনকি এর পেছনে কোন যৌক্তিক ব্যাখ্যা বা কারণও উল্লেখ করা হয়নি।

চোখের সামনে নিজের শিল্পকর্ম ধ্বংস হতে দেখার কষ্ট যেকোন শিল্পীর কাছে সন্তান হারানোর বেদনার চাইতে কোন অংশে কম নয়। সম্পূর্ণ বিনা কারণে এরকম পরিস্থিতির শিকার হওয়ায় ব্যাথিত ও বিক্ষুব্ধ বুয়েট শিক্ষার্থীরা। তারা মনে করেন, এটি শুধু বাকস্বাধীনতার পরিপন্থিই নয়, বরং শিল্পচর্চার উপর আগ্রাসন। কেউ কোন বিবৃতি দিতে রাজী না হলেও, রামপালের সমর্থক প্রভাবশালী একটি ছাত্রসংগঠনের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন তারা।

উল্লেখ্য, অন্যান্য গ্রাফিতিগুলো অক্ষত থাকলেও, শুধু রামপালবিরোধী গ্রাফিতিগুলোই বেছে বেছে ঢেকে দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*